গৃহবধূ ইয়াছমিনকে শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে ভর্তি

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্বামীর দেয়া আ'গুনে ঝলসে যাওয়া গৃহবধূ ইয়াছমিনকে রাজধানীর শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার (২১ নভেম্বর) রাত ৯টার দিকে তাকে ভর্তি করা হয়। শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন চিকিৎসক ডা. পার্থ শঙ্কর পাল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ইয়াছমিনের অবস্থা আশ'ঙ্কাজনক। তার কোম'রের নিচের অংশসহ পঁচিশ শতাংশ দ'গ্ধ হয়েছে।

এর আগে উন্নত চিকিৎসার জন্য দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তাকে ঢাকায় পাঠায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চ'মেক) হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

চ'মেক হাসপাতা'লের বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগের প্রধান ডা. রফিক উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘আ'গুনে ইয়াছমিনের শরীরের প্রায় ৪০ শতাংশ দ'গ্ধ হয়েছে। পা-উরুসহ নিচের অংশ প্রায় পুরোটাই পুড়ে গেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ লক্ষ্যে বেলা ১১টার দিকে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়।’

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার রাতে যৌতুক নিয়ে গৃহবধূ ইয়াছমিন ও তার স্বামী রাফেলের মধ্যে কথাকা'টাকাটি হয়। এ ঘটনার জেরে শুক্রবার ভোররাতে স্ত্রী' ইয়াছমিনের শরীরে পেট্রল ঢেলে আ'গুন ধরিয়ে দেন রাফেল।

দ'গ্ধ গৃহবধূ ইয়াছমিনকে শুক্রবার চ'মেক হাসপাতা'লের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় পু'লিশ স্বামী রাফেলকে গ্রে'ফতার করে।

Back to top button