আজমির শরিফের স্মারক বইতে যা লিখলেন প্রধানমন্ত্রী

রাজস্থানের আজমীরের খাজা গরীবে নেওয়াজ হযরত মঈনুদ্দীন চিশতি (রহ.)-এর দরগা শরীফ জিয়ারত ও প্রার্থনার মাধ্যমে তার ৪ দিনব্যাপী ভারত সফর শেষ করে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ।

বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় দেশে রওনা দেওয়ার আগে ভারতের রাজস্থানের জয়পুরে খাজা গরিবে নেওয়াজ দরগা শরিফ (আজমিরে সুফি সাধক খাজা মঈনুদ্দিন চিশতির দরগা) জিয়ারত ও সেখানে প্রার্থনা করেন তিনি। এ সময় দরগা স্মারক বইতে এক লাইন লিখেন তিনি। যেখানে দেশবাসীর জন্য দোয়া চেয়েছেন তিনি। নিজের সই দিয়ে সেখানে প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, ‘দেশের জনগণের জন্য দোয়া চাই।’

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক তার ফেসবুকে সেখানকার কিছু ছবি শেয়ার করেছেন। তার মধ্যে এই লেখার ছবিও আছে। পোস্টে জুনায়েদ আহমেদ পলক লিখেছেন, ‘বঙ্গবন্ধুকন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার হৃদয়ে দেশ ও দেশের মানুষের জন্য ভালোবাসা, প্রার্থনা, চাওয়া কতখানি জুড়ে আছে সব এ লেখাই বলে দেয়।’

বৃহস্পতিবার আজমির শরিফ সফর করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সকালে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে সেখানে পৌঁছান তিনি। আজমিরে সুফি সাধক খাজা মঈনুদ্দিন চিশতির দরগায় শ্রদ্ধা নিবেদন করেন শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী সেখানে নফল নামাজ ও মোনাজাতের মাধ্যমে দেশ, জনগণ ও মুসলিম উম্মাহ’র উন্নতি, সমৃদ্ধ ও কল্যাণ কামনা করেন।’ তিনি আরও বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী সেখানে কিছু সময় থাকেন। এ সময় তিনি ফাতিহা পাঠ ও মোনাজাত করেন। এরপর শেখ হাসিনা আজমির শরীফ প্রদক্ষিণ করেন।’

এর আগে, ৫ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী নয়াদিল্লীর পালাম বিমানবন্দরে পৌঁছান। সেখানে শেখ হাসিনাকে লাল গালিচা সংর্বধনা দেওয়া হয়। দিল্লীতে নিজামউদ্দিন আউলিয়ার দরগাহ জিয়ারত ও সেখানে প্রার্থনার মাধ্যমে তার ভারত সফরের কর্মসূচি শুরু করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি সেখানেও প্রার্থনা করেন।

Back to top button