ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিয়ের গেট নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা, আসামি ৯০০ জন

এবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে বিয়েবাড়ির গেটকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষের ঘটনায় শতাধিক ব্যক্তির নাম উল্লেখ করে মামলা করেছে পুলিশ। মামলায় অজ্ঞাতপরিচয় আরও ৮০০ জনকে আসামি করা হয়েছে। আজ বুধবার ১৭ আগস্ট বিকেলে নবীনগর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. ইমরান বাদী হয়ে মামলাটি করেন। নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুর রশিদ মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এ বিষয়ে তিনি জানান, উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নে দুই গ্রামের সংঘর্ষের ঘটনায় উভয় পক্ষের ৯ শতাধিক ব্যক্তিকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে। মামলায় ১২৭ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। বাকি সব অজ্ঞাতপরিচয়। এ ঘটনায় আটক সাতজনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

এর আগে গত সোমবার ১৫ আগস্ট কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের সীতারামপুর গ্রামের রিয়াজুদ্দিন গোষ্ঠীর রাজুর বাড়িতে বিয়ে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছিল। সেখানে ডেকোরেশনের কাজ করেন দৌলতপুর গ্রামের হাসান আলী বাড়ির ছেলে। তবে গেটের ডিজাইন পছন্দ হয়নি বিয়েবাড়ির লোকজনের। এ নিয়ে ডেকোরেশনের দায়িত্বে থাকা ছেলেটির সঙ্গে তাদের বাগবিতণ্ডা ও ধস্তাধস্তি হয়।

এ ঘটনার জেরে পরদিন গতকাল মঙ্গলবার ১৬ আগস্ট সন্ধ্যার পর দৌলতপুর ও সীতারামপুর গ্রামের দুই যুবক মারামারিতে জড়িয়ে পড়েন। এ নিয়ে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে দফায় দফায় মধ্যরাত পর্যন্ত সংঘর্ষ চলে। এ সময় অনেক বাড়িঘর ও দোকানপাট ভাঙচুর করা হয়। একটি মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ করা হয়। পরে পুলিশ গিয়ে রাবার বুলেট ছুড়ে প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হন।

Back to top button