এই ধরনের চুক্তির আগে সাকিবের ১০ বার ভাবা উচিত ছিল: আহমাদুল্লাহ

সম্প্রতি বেটউইনার নিউজের সঙ্গে সাকিব আল হাসানের চুক্তি নিয়ে জল ঘোলা হয়েছে বেশ। সাকিব যদিও বিসিবির চাপে শেষ পর্যন্ত চুক্তি থেকে সরে এসেছেন। তবে এর প্রভাব পরেছে জনমনে। তাই অনলাইন বেটিং বা জুয়া নিয়ে ইসলামের ব্যাখা দিলেন শায়খ আহমাদুল্লাহ।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, সাকিব অনলাইন জুয়া প্রতিষ্ঠানের সেই চুক্তি থেকে সরে এসেছেন সেটি খুবই চমৎকার বিষয়। কিন্তু সেই প্রতিষ্ঠানের যে পরিমাণে প্রচারণা হয়েছে সেটি আমাদের সমাজের জন্য কল্যাণকর নয়। কয়েকদিনের টানা প্রচারণায় অনেকেই সেই জুয়া প্রতিষ্ঠানের সাইটের প্রতি আকৃষ্ট হবেন। তাদের কার্যক্রম দেখবেন, এমনকি জুয়ায়ও লিপ্ত হতে পারেন।

শায়খ আহমাদুল্লাহ বলেন, একজন মানুষ যখন ব্যাপক পরিচিত লাভ করেন তখন তার কাছে মানুষের বেশি চাওয়া থাকে। তাকে দেখে মানুষ শেখে। তাই এমন কাজের সঙ্গে সাকিব আল হাসানের চুক্তি করার সিদ্ধান্তটা আরও ভেবে চিনতে নেয়া উচিত ছিল। সাকিব একজন মুসলিম পরিবারের সন্তান। তিনি মসজিদও নির্মান করেছেন। তিনি ধার্মিক একজন মানুষ। তার আল্লাহর প্রতি ইমান এবং বিশ্বাস আছে। তাই এমন কোন কাজ করা ঠিক নয় যেটি মানুষ খারাপ কাজে অনুপ্রাণিত হয়।

তিনি আরও বলেন, সাকিবের মতো মানুষদের যারা অনুসরণ করেন তাদের প্রতিটি কাজ করার আগে ১০ বার ভাবা উচিত। একটি ভুল সিদ্ধান্ত সমাজের ওপর কতোটা প্রভাব পড়তে পারে। প্রতিটি দায়িত্বশীল মানুষের এই বিষয়ে খেয়াল রাখা দরকার।

এ সময় মহানবীর (সা:) উক্তি দিয়ে শায়খ আহমাদুল্লাহ বলেন, যে ব্যাক্তি কোন মন্দ কাজে লিপ্ত হয় এবং যার দেখাদেখি এটার প্রচার লাভ করে, এর মাধ্যমে যত মানুষই মন্দ কাজে লিপ্ত হবে সকলের পাপের বোঝা তাকেও বহন করতে হবে। জুয়া অফলাইন কিংবা অনলাইন যেভাবেই সম্পৃক্ত হননা কেন সেটি কিন্তু হারাম।

Back to top button