বেটিং প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সাকিবের চুক্তি, সমাধানের চেষ্টায় বিসিবি

২ আগস্ট বেটউইনার নিউজের শুভেচ্ছাদূত হয়েছেন সাকিব আল হাসান। যা মূলত বেটিং সাইট বেটউইনারের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান।বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী অনলাইন বেটিং বা জুয়া পুরোপুরি নিষিদ্ধ। এ নিয়ে আইসিসি, বিসিবির কঠোর বিধিনিষেধও আছে। তার পরেও বামহাতি অলরাউন্ডারের এমন চুক্তি বিপদে ফেলেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি)। এই মুহূর্তে বিসিবি সাকিবের সঙ্গে আলোচনা করে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করছে।

সাকিবকে ‘ভুল’ পথ থেকে ফেরাতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস মিরপুরে সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, ‘আমরা এই ধরনের জিনিসগুলোর প্রতি জিরো টলারেন্স দেখাই। এখানে যে সম্পৃক্ততা দেখা যাচ্ছে, এ ধরনের কোনও একটা কোম্পানির সঙ্গে সাকিবের চুক্তি হয়েছে। আমরা তাকে জানিয়েছি, সেও জানে ব্যাপারটা। আমরা এটা যত দ্রুত সম্ভব সমাধান করার চেষ্টা করছি।’

সাকিবের এই চুক্তির কারণে টি-টোয়েন্টির নতুন অধিনায়ক ঘোষণায় বিলম্ব হচ্ছে। বিসিবি চাইছে, এটা সমাধান করেই নাম ঘোষণা করতে। জালাল ইউনুস বলেছেন, ‘একটা ইস্যু হয়েছে এবং এটা নিয়ে আমরা তার সঙ্গে যোগাযোগ করছি। একবার সেটি হয়েছে। আশা করি, ইস্যুটা আমাদের সমাধান করা দরকার। এই সমস্যা সমাধানের জন্য আমরা তার সঙ্গে আলাপ করছি। দুই-একদিনের মধ্যে আপনারা জানতে পারবেন।’

সরাসরি বেটিং সাইট না হলেও বেটিং সাইটের মূল প্রতিষ্ঠান বেটউইনার নিউজ। ঠিক এই কারণেই বিসিবিও বিষয়টি গুরুত্বসহকারে নিয়েছে, ‘আমরা এটা মানতে পারছি না বলেই তাকে জানানো হয়েছে। সে আমাদের খেলোয়াড়, সেও বুঝবে। আর কেউ তো বিতর্কিত কোথাও জড়াতে চায় না। জেনে হোক অজান্তে হোক কিংবা ভুলে- আমরা তাকে বলেছি। এটা সমাধানের চেষ্টা করছি। আশা করছি, দ্রুত সমাধান হবে।’

Back to top button