‘আন্তর্জাতিক ভিক্ষুক’ মতিয়ারের জামিন

সৌদি আরবে গিয়ে ভিক্ষা করে আলোচিত মতিয়ার রহমান মিন্টু ঢাকার আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন।

গত শুক্রবার হজ শেষে ফেরার সময় ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন তিনি।

ইমিগ্রেশন পুলিশ তাকে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে শনিবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে নেওয়ার পর পাঠানো হয়েছিল কারাগারে।

রোববার ঢাকার মহানগর হাকিম মাহবুব আহমেদের আদালত থেকে তার জামিনের আদেশ হয় বলে জানিয়েছেন ঢাকার অপরাধ, তথ্য ও প্রসিকিউশন বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মোহাম্মদ জাফর হোসেন।

মতিয়োরের স্বভাব-চরিত্র সম্পর্কে নতুন কোনো তথ্য তদন্ত কর্মকর্তা উল্লেখ করতে না পারায় তার জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন বিচারক।

জামিন আবেদনের শুনানিতে মতিয়ারের আইনজীবী আবুল কালাম আজাদ বলেন, আসামি অসহায়, পঙ্গু। তার বিরুদ্ধে নতুন কোনো তথ্য তদন্ত কর্মকর্তা দিতে পারেননি। সুতরাং তাকে জামিন দেওয়া হোক।

মতিয়ারের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তার আচরণে দেশের ভাবমূর্তি ‘মারাত্মকভাবে ক্ষুণ্ন’ হয়েছে।

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার সিন্দুরকোটা গ্রামের ৫৮ বছর বয়সী মতিয়ার ভিক্ষা করতে বহুবার সৌদি আরব, পাকিস্তান ও ভারতে গেছেন। গ্রামে কিছু না করলেও বিঘা-বিঘা সম্পত্তির মালিক তিনি।

প্রতি বছরই তিনি হজে যান এবং লাখ লাখ টাকা নিয়ে আসেন বলে স্থানীয়রা জানান।

এবার হজে গিয়ে ভিক্ষাবৃত্তির দায়ে গত ২২ জুন মদিনায় তিনি গ্রেপ্তার হন। পরে বাংলাদেশ হজ মিশনের কর্মীরা থানায় মুচলেকা দিয়ে তাকে ছাড়িয়ে আনে। পরে ফেরত পাঠানো হয় দেশে।

Back to top button