খোলা সয়াবিন তেল বিক্রি করা যাবে না: বাণিজ্যমন্ত্রী

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেছেন, ‘দেশে প্রয়োজনের তুলনায় অনেক বেশি নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য মজুদ রয়েছে, কোনো পণ্যের ঘাটতি নেই। কোনো অসাধু ব্যবসায়ীকে সুযোগ নিতে দেওয়া হবে না। দেশব্যাপী প্রশাসনকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। কৃত্রিম উপায়ে পণ্যের সংকট সৃষ্টি করে মূল্য বৃদ্ধি করার চেষ্টা করা হলে বা পণ্য অ'বৈধ মজুদ করা হলে, সংশ্লিষ্টদের বি'রুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আগামী ৩১ মে থেকে সয়াবিন ও ৩১ ডিসেম্বর থেকে পাম তেল খোলা বিক্রি করা যাবে না। এসব তেল শুধু বোতলে বিক্রি হবে। ভোজ্যতেলের দাম নিয়ন্ত্রণে সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আজ বুধবার বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে সরকারের এ সিদ্ধান্ত তুলে ধরেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

এর আগে তিনি আসন্ন পবিত্র রমজান উপলক্ষে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মজুদ, সরবরাহ, আম'দানি, মূল্য পরিস্থিতি স্বাভাবিক এবং স্থিতিশীল রাখার লক্ষ্যে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন।

সংবাদ সম্মেলনে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের মজুত যথেষ্ট পরিমাণে আছে। সব আমাদের হাতে আছে, কোনোটার সমস্যা নেই। হঠাৎ করে টিসিবি সিদ্ধান্ত নেয়, এক কোটি মানুষকে পণ্য দেবে, সে ব্যবস্থাও তারা করেছে।’

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সরকারের চেয়ে বড় হাত কারও নয়। আম'রা বসতে চাই, সুবিধা দিতে চাই। কিন্তু তাই বলে এমন না তারা সুযোগ নেবেন। কিছুদিন আগে তারা এসেছিলেন তেলের দাম বাড়ানোর বিষয়ে। আম'রা পরিষ্কার বলে দিয়েছি, এটা সম্ভব নয়। আম'রা দেখতে চাই এবং কোথাও সুযোগ নিতে দেব না। এ বিষয়ে গণমাধ্যমেরও একটু সহযোগিতা চাই। আমাদের প্রশ্ন করেই শেষ করবেন না, আপনারা বাজারেও ঢুকে পড়েন।’

Back to top button