মদের লাইসেন্স প্রদানের প্রতিবাদে রাজধানীতে জামায়াতের বিক্ষোভ

সরকার কর্তৃক মদের লাইসেন্স প্রদানের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ শাখা। মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে শুরু করে গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি সড়ক প্রদক্ষিণ করে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ করা হয় এই বিক্ষোভ মিছিল।

ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সেক্রেটারি ড. শফিকুল ইসলাম মাসুদের নেতৃত্বে এ বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় ড. শফিকুল ইসলাম মাসুদ বলেন, এই দেশ ৯০ ভাগ মুসলমানের দেশ। এদেশে মদের লাইসেন্স প্রদানের মধ্য দিয়ে যুবসমাজকে নৈতিক অবক্ষয়ের দিকে ঠেলে দিচ্ছে সরকার। মদের লাইসেন্স দিয়ে জাতিকে বেশামাল করার চক্রান্ত এদেশের মানুষ মেনে নেবে না। এই সরকার ক্ষমতা হারানোর ভয়ে যুব সমাজকে বেশামাল করে দিতে চায়, একটি প্রজন্মকে ধ্বংস করে দেয়ার জন্য পাঁয়তারা করছে করছে সরকার।

বইমেলার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বইমেলায় ইসলামী বই প্রদর্শন ও বিক্রি অলিখিত আইনের মাধ্যমে বন্ধ করা হয়েছে। অপরদিকে যুব সমাজকে মদ, মাদকতা ও বিকৃত কর্মকান্ডের দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে। দেশপ্রেমিক জনতা যুব সমাজ ও জাতিকে ধ্বংসকারী সরকারের এই অনৈতিক সিদ্ধান্ত কখনো মেনে নিবে না। অবিলম্বে ইসলামে সম্পূর্ণরূপে হারাম ঘোষণা করা মদের অবাধ লাইসেন্স প্রদানের আত্মঘাতি সিদ্ধান্ত থেকে সরকারকে সরে আসতে হবে। অন্যথায় দেশপ্রেমিক জনতা তীব্র গণআন্দোলনের মাধ্যমে তা প্রতিহত করবে। দেশের মানুষ এ ব্যাপারে অবশ্যই সোচ্চার হয়ে ভূমিকা পালন করবে।

ড. শফিকুল ইসলাম মাসুদ আরো বলেন, সম্প্রতি দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতিতে মানুষের জনজীবন স্থবির হয়ে পড়েছে। দিন দিন চাল, ডাল, তেলসহ নিত্যপণ্যের দাম মানুষের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে। দেশে দুর্ভিক্ষের পদধ্বনি শোনা যাচ্ছে অথচ এ ব্যাপারে সরকারের কোন দৃষ্টি নেই। যারা মানুষের দুঃখ দুর্দশা লাঘবের পরিবর্তে নতুন করে আরও সমস্যা আমাদের উপরে চাপিয়ে দিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে আন্দোলন করা ছাড়া আর কোন উপায় নেই। সরকারের সকল প্রকার অন্যায়, জুলুমের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে এদেশের সাধারণ জনগণকে তীব্র গণআন্দোলন গড়ে তুলার উদাত্ত আহবান জানানও জানান এই নেতা।

Back to top button