৩৫ লাখ টাকা দিয়ে অসুস্থ শিশুকে বাঁচালেন রাহুল

দলের বিপর্যয় মুহূর্তে বহুবার জ্বলে উঠেছেন রাহুল। অনেক হারা ম্যাচও জিতিয়েছেন তিনি। এবার ৩৫ লাখ টাকা দিয়ে অসুস্থ শিশুকে বাচিয়ে প্রশংসায় ভাসছেন এই তারকা ক্রিকেটার।

বয়স মাত্র ১১। এই বয়সেই শরীরে বাসা বেঁধেছে বিরল রক্তরোগ। চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন বিপুল অংকের টাকা। কিন্তু বাবা-মায়ের পক্ষে এত টাকা জোগার করা সম্ভব নয়।

গত বছরের ডিসেম্বরে ভরদের বাবা পেশায় বীমা এজেন্ট শচীন নালাওয়াড়ে এবং মা স্বপ্না ঝা ত্রাণ সংস্থা গিভইন্ডিয়া ফাউন্ডেশনের যোগাযোগ করেন। সেই সূত্রেই তারা পেয়ে যান ভারতের জাতীয় দলে তারকা ক্রিকেটার লোকেশ রাহুলের খোঁজ। রাহুলের অর্থ সাহায্যে শিশুটি এখন সুস্থ হয়ে উঠছে।

ভরদ নামের শিশুটি পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র। তার দেহে বিরল রক্তজনিত রোগ অ্যাপ্লাস্টিক অ্যামিনিয়া ধরা পড়েছে। এরপর থেকে সে হেমাটলোজিস্টদের চিকিৎসায় আছে। তাকে বাঁচানোর জন্য জরুরি ভিত্তিতে অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন করাতে হতো। এজন্য প্রয়োজন ৩৯ লাখ টাকা। এর মাঝে ৩৫ লাখ টাকা একাই দিয়ে দিয়েছেন রাহুল। ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, সেই টাকায় অস্ত্রোপচারের পর ভরদ এখন ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছে।

ওই ত্রাণ সংস্থার মাধ্যমে ভরদের ব্যাপারে জানতে পারেন রাহুল। এক স্পোর্টস ওয়েবসাইটে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘যখন আমি ভরদের ব্যাপারে জানতে পারি, তখনই টিমকে বলি গিভইন্ডিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করতে। যেভাবে হোক আমাদের সাহায্য করতে হবে। আমি খুশি যে অস্ত্রোপচার সফল হয়েছে। শিশুটি ভালো আছে। আমি আশা করি ভরদ দ্রুত নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে নিজের স্বপ্নপূরণ করুক। আশা করি এটা অন্যদের উৎসাহিত করবে। যাদের প্রয়োজন তাদের জন্য হয়তো অনেকেই এগিয়ে আসবে। ‘

Back to top button