তেলের দাম না বাড়ালে আরও বড় সংকট দেখা দিতো: বাণিজ্যমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম বাড়ার কারণে দেশের বাজারেও তা সমন্বয় করা হয়েছে। এটি না করা হলে আরও বড় সংকট দেখা দিতো বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। রোববার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন তিনি।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা তেলের দাম বাড়িয়েছি। কারণ দেশের ৯০ শতাংশ খাওয়ার তেল আমরা আমদানি করে থাকি। আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। একইসঙ্গে বেড়েছে কনটেইনার ভাড়া। এর সমন্বয় যদি আমরা ঠিক করে না দেই তাহলে আমদানিকারকরা তো তেল আনবে না।

তিনি বলেন, এজন্য আমাদের ট্যারিফ কমিশন বসে আন্তর্জাতিক বাজারে প্রায় ১৫ দিনের গড় দাম নির্ধারণ করে, কনটেইনার ভাড়া সব দেখে একটা মূল্য নির্ধারণ করে যেটা হওয়া উচিত সেটা আমরা বলি। তেলের যে বিষয়টা সেটা বিশ্ব বাজারে ৪ বছর আগে যেটা ছিল তার দ্বিগুণেরও বেশি হয়েছে। সেটা যদি আমরা না বাড়াই তাহলে তারা আমদানি করবে না। আমদানি না করলে আরও বড় সংকট দেখা দিবে।

টিপু মুনশি বলেন, সত্যি বলতে মানুষের কষ্ট হচ্ছে। কিন্তু আন্তর্জাতিক বাজারে বেড়ে যাওয়ায় আমাদের কিছু করার নেই। এখন আমরা চেষ্টা করছি সরকারের পক্ষ থেকে ভর্তুকি দিয়ে সাধারণ মানুষকে দেওয়া।

তিনি আরও বলেন, আমরা এখন দেশে টিসিবির ৪০০ ট্রাকের মাধ্যমে দিচ্ছি, সেটা দরকার হলে ৮০০ করে দেবো। আমরা চিন্তা করলাম রমজান মাসে ৫০ লাখ লোককে দেওয়া যায় কি না। সেটা ট্রাকের মাধ্যমে নয়, তৃণমূলে যাদের সরকার আগে আড়াই হাজার করে টাকা দিয়েছিল, দুস্থ যাদের তাদের কাছে পৌঁছে দেবো। প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন, ১ কোটি মানুষকে দিতে।

Back to top button