পদ না পেয়ে আওয়ামী লীগ নেতার কান্নাকাটি

সিরাজগঞ্জের পৌর ওয়ার্ডের এক আওয়ামী লীগ নেতা দলীয় পদ না পাওয়ায় অঝোরে কান্নায় ভেঙে পড়েন। ওই নেতার কান্নার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলার শ্যামকিশোর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের এ সম্মেলন হয়।

এতে বেলকুচি পৌরসভার দুই নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আবু বক্কার অভিযোগ করেন, নিজেদের স্বার্থ হাসিলের জন্য একটি চক্র জামায়াত-বিএনপির লোক দিয়ে বেলকুচি পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ড কমিটি গঠন করেছে। এসময় নিজের পদ বাতিল এবং নতুন পদ না পাওয়ায় কান্নায় ভেঙে পড়েন আবু বক্কার।

১ মিনিট ৯ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে দেখা যায়, আওয়ামী লীগের এই নেতা মাতম করতে করতে বলেন, ‘আমি একজন আওয়ামী পরিবারের সন্তান। আমাকে বাদ দিয়ে বিএনপি-জামায়াত থেকে নেতা বানানোর পাঁয়তারা চলছে। ’ এসব বলে একবার মাটিতে পড়েও যান তিনি। তখন তাকে এক ব্যক্তি ধরে ছিলেন। তিনি তাকে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। এই অভিযোগের সরেজমিন তদন্ত করে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক সরকার জানান, ‘গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সম্মেলন পরিচালনা হয়েছে। কে নেতা হবেন, কে হবেন না সে বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আর কে কান্নাকাটি করছেন এটা আমাদের জানার বিষয় না।

বেলকুচি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আশানুর বিশ্বাস বলেন, আব্দুর রাজ্জাক বিগত পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার বিরুদ্ধে কাজ করেছেন এবং বিদ্রোহী প্রার্থীর এজেন্ট ছিলেন। এমন আবস্থায় তার প্রার্থীরা বাতিল করা হয়েছে।

Back to top button