দেশে মদের অবাধ অনুমতি, ইসলামী আন্দোলনের বিক্ষোভ

দেশে ২১ বছরের কম বয়সীদের মদ পান নিষিদ্ধ করেছে সরকার। সেই সঙ্গে অ্যালকোহল সেবন এবং ব্যবহারের জন্য সরকারের অনুমতি নিতে হবে। দেশে মদের অবাধ অনুমতির কড়া সমালোচনা করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ।

একইসঙ্গে দ্রুত নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম না কমালে সরকার পতনের আন্দোলন শুরু হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় নেতারা। শুক্রবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বায়তুল মোকাররমে জুমার নামাজ শেষে এক বিক্ষোভ সমাবেশে এ হুঁশিয়ারি দেন তারা।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম বলেন, আমি নিজে দেখেছি, খাবারের অভাবে মানুষ বাজারে ব্যাগ নিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু কিনতে পারছে না। খালি ব্যাগ নিয়ে ফিরছে। কারণ তাদের কেনার সামর্থ্য নেই। বাচ্চাগুলো ক্ষুধায় কাতরাচ্ছে। এগুলো এখন সরকার দেখে না।

তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে দাম সমন্বয়ের কথা বলে পণ্যের দাম বাড়াচ্ছেন। কিন্তু বাইরে কমার পরে তখন আর দেশে কমে না। কেরোসিনের দাম এখন আন্তর্জাতিক বাজারে কম, তাহলে কেন দেশে কমাচ্ছেন না!

মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম বলেন, উল্টোদিকে মদের লাইসেন্স দিবেন ২১ বছরের ছেলেদের। আপনারা সারাজীবন বলেছেন যে বিএনপি মদের লাইসেন্স দিয়ে দেশের যুবসমাজ ধ্বংস করেছে। তাহলে এখন এ সিদ্ধান্ত কেন?

তিনি আরও বলেন, যারা সত্যিকারে বঙ্গবন্ধুর চেতনার বিশ্বাসী তারা এগিয়ে আসুন। যারা ইসলামের চেতনায় বিশ্বাসী তারা আসুন। এ মদ অবাধ করার সিদ্ধান্ত আমরা ঠেকাবো।

এ সময় আন্দোলনকারীরা ভারতে হিজাব নিয়ে চলমান বিতর্ক নিয়েও কথা বলেছেন। ভারত সরকার হিজাব বন্ধ করার চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ করেন আন্দোলনকারীরা। একইসঙ্গে তারা সরকারকে ভারতের এসব কার্যকলাপের প্রতিবাদ করারও আহ্বান জানান। সমাবেশ শেষে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নেতাকর্মীরা একটি বিক্ষোভ মিছিল করেন।

Back to top button