প্রেমের টানে ভারতীয় তরুণী বাংলাদেশে

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বাদামবাড়ী (রতনদিঘী) গ্রামের ইসরাইলের ছেলে আব্দুল লতিফ ওরফে রাকিব (২২) ভারতের কেরালা প্রদেশের হাজী আলী নামের এক ব্যক্তির হোটেলে কাজ করতে যান। রাকিবের কর্মস্থল সেই হোটেলে আরও এক যুবক কাজ করতেন যার বাসা ভারতের উত্তর দিনাজপুর জেলার গোয়ালপুকুর থানার হরিয়ানি গ্রামে।

একইসাথে কাজ করার সুবাদে ওই ভারতীয় যুবকের বোন খুসনুমা (১৮)’র সাথে এক পর্যায়ে রাকিবের পরিচয় হয়। একসময় রাকিব ও খুসনুমার মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

পরে রাকিব কিছুদিন আগে বাংলাদেশে তার নিজ বাসায় চলে আসেন। রাকিবের খোঁজে বৃহস্পতিবার (১৭ ফেব্রুয়ারী) সকালের দিকে প্রেমিকা ভারতীয় তরুণী খুসনুমা প্রেমের টানে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে পার্শবর্তী জেলার পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ার ঈদগাহ বস্তী এলাকায় এসে পৌছান।

খবর পেয়ে তরুণীকে বাংলাদেশী পুলিশ আটক করেন। এমন খবর পেয়ে প্রেমিক রাকিব তেঁতুলিয়া থানায় গিয়ে হাজির হন। সেখানে প্রেমিকা খুসনুমাকে কাছে পেতে কান্নাকাটি করেন এবং বলেন আমি খুসনুমাকে ভালোবাসি চার মাস আগে আমাদের বিয়েও হয়েছে।

কিন্তু রাকিবের কাছে বিয়ের কোন বৈধ কাগজপত্র না থাকায় তরুণী খুসনুমাকে ভারতে ফেরত দেওয়ার প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।ভারতীয় খুসনুমাও কান্নাভরা কন্ঠে জানান- আমি রাকিবকে ছাড়া বাঁচব না। সে আমার স্বামী । আমি তাকে ছাড়া যাব না”

Back to top button