যৌতুক থেকে বাঁচতে ট্রেনের নিচে মা, সঙ্গে চার বছরের মেয়ে

বগুড়ার আদমদীঘির সান্তাহার রেলওয়ে থানা এলাকায় কন্যাশিশুকে নিয়ে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে মা-মেয়ে আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে সান্তাহার রেলওয়ে থানাধীন রাণীনগর রেলস্টেশনের উত্তর দিকে ঢাকাগামী কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনের নিচে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলো উপজেলার সান্তাহার ইউপির প্রান্নাথপুর গ্রামের নাঈম হোসেনের স্ত্রী ময়নুম জাহান (২৪) ও তাঁর শিশুকন্যা নুরজাহান (৪)।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, পাঁচ বছর আগে নাঈম হোসেনের সাথে পারিবারিকভাবে ময়নুম জাহানের বিয়ে হয়।

বিয়ের সময় ময়নুমের পরিবার ৩০ হাজার টাকা যৌতুক প্রদান করলেও বিয়ের পর আরো ২০ হাজার টাকা প্রদান করার চুক্তি করেন তাঁর মা। বিয়ের বছর ঘুরতেই তাঁদের ঘরে জন্ম নেয় শিশু নুরজাহান। এর কিছুদিন পর অটোরিকশাচালক স্বামী নাঈম তাঁর স্ত্রীকে যৌতুকের বকেয়া টাকার জন্য চাপ দেওয়া শুরু করেন। ময়নুম সেই টাকা তাঁর মায়ের কাছে থেকে নিয়ে আসতে না পারায় স্বামীর সঙ্গে প্রায়ই বিবাদ হতো। একপর্যায়ে স্বামীর ওপর অভিমান করে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ৫০ মিনিটে ঢাকাগামী কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনে শিশু নুরজাহানকে নিয়ে ময়নুম ঝাঁপিয়ে পড়েন। ঘটনাস্থলেই মা-মেয়ের মৃত্যু হয়।

সান্তাহার রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাকিউল আজম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহত মা-মেয়ের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Back to top button