৩৪ বছরে সুন্নতে খতনা করা সেই বেলালের মাথায় ‘পানি অনুষ্ঠান’

৩৪ বছর বয়সে মুসলমানি (সুন্নতে খাতনা) করেছেন বেলাল হোসেন নামের এক যুবক। এমন ঘটনাই ঘটিয়েছেন টাঙ্গাইল জেলার ভূঞাপুরে উপজেলার জিগাতলা গ্রামের মোঃ আব্দুল আজিজের ছেলে বেল্লাল হোসেন।

গত ৬ জানুয়ারি সকালে টাঙ্গাইল ক্লিনিকে অপারেশন মাধ্যমে এ সুন্নতে খাতনা সম্পন্ন করেন। টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান ডা. মো. গোলাম মোস্তাফা মিয়ার তত্ত্বাবধানে সুন্নতে খাতনা করানো হয়।

এদিকে, বিয়ের তিন বছর পর ৩৪ বছর বয়েসে মুসলমানি (সুন্নতে খতনা) করা বেলাল হোসেনের মাথায় পানি অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে তার নিজ বাড়ি উপজেলার জিগাতলা গ্রামে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠান শেষে এলাকার মানুষের মধ্যে মিষ্টি বিতরণ করা হয়।

জানা যায়, জন্মগতভাবে বেলাল হোসেনের খোদার মুসলমানি হয়েছে বিধায় আর মুসলমানি (সুন্নতে খতনা) করেনি। তাদের ধারণা ছিল আর মুসলমানি করাতে হবে না। কিন্তু বেলালের বিয়ের কথা বার্তা শুরু হলে তখন নানা মহল থেকে তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপবাদ আস্তে লাগে।

বিয়ে উপলক্ষে বিভিন্ন জায়গা থেকে খোঁজ খবর নিতে আসলে তার বিরুদ্ধে এলাকার কিছু লোক নানা বদনাম ও অপবাদ দিয়ে বেলাল হোসেনের বিয়ে ভেঙে দিতেন। এই অপমান ও অপবাদের কারণে তিনি অতিষ্ঠ হয়ে পরেন। তাই সেই অপমান ও অপবাদ থেকে রক্ষা পেতে নিজেই ডাক্তারের কাছে গিয়ে গত (৬ জানুয়ারি) সকালে অপারেশনের মাধ্যমে এ মুসলমানি (সুন্নতে খতনা) সম্পন্ন করে।

Back to top button