‘এ প্লাস’ পেয়েছে মায়ের লাশ রেখে পরীক্ষায় অংশ নেয়া সেই মোস্তাফিজ

মায়ের লাশ বাড়িতে রেখে পরীক্ষা দেয়া একজন ছেলের জন্য খুবই কঠিন। সেই কঠিন কাজটায় করেছেন মোস্তাফিজ। রোববার প্রকাশ হয়েছে এইচএসসি ও সমাপনী পরীক্ষার ফল। এতে পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার স্থানীয় আমান উল্লাহ কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র মোস্তাফিজুর রহমান গোল্ডেন এ প্লাস পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে।

ফলাফল পাওয়ার পর অশ্রুশিক্ত কণ্ঠে মোস্তাফিজ জানান, আমার সাফল্য দেখে যেতে পারলনা বাবা মরহুম বিপ্লব আকন ও মা মাটিভাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষিকা মরহুমা লায়লা জেসমিন মুন্নী !

বিপ্লব-মুন্নী দম্পতির দুই ছেলের মধ্যে মোস্তাফিজ বড়।

ছোট ছেলে মুইন স্থানীয় বিহারী লাল মিত্র পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ে। আমান উল্লাহ কলেজের অধ্যক্ষ মো. কাওসার উদ্দিন জানান, ছেলেটি অত্যন্ত মেধাবী। পরীক্ষা চলাকালীন ওর মা মারা যায়। সেদিন আমরা গিয়ে মায়ের লাশ বাড়িতে রেখে পরীক্ষা শেষ হওয়ার পরে ওর উপস্থিতিতে জানাজা সম্পন্ন করি। আফসোস এ সাফল্য দেখে যেতে পারেনি ওর বাবা-মা !

সবচেয়ে বড় ট্রাজেটি হলো ২০২০ সালে অল্প বয়সে ওর বাবা মারা যায়। ২০২১ সালের ডিসেম্বরে মা মারা যায় । এছাড়া একই পরিবার থেকে পর পর পাঁচ জন মারা যাওয়ায় যা অত্যন্ত হৃদয় বিদারক !

Back to top button