জমি দখলের অভিযোগকারীদের টাকা দিয়ে ভাড়া করে এনেছে : জায়েদ খান

চিত্রনায়ক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে জমি ও স্থাপনা দখলের অভিযোগে মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগী বেশ কিছু পরিবার। রোববার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা দাবি করেন, ‘অন্তরজ্বালা’ সিনেমার শুটিংয়ের কথা বলে পিরোজপুর সদরে হিন্দুদের জমি ও ক্লিনিক দখল করেন জায়েদ খান। এর সঙ্গে জড়িত আছেন নায়কের ভাই ওবায়দুল হক পিন্টু ও শহীদুল হক মিন্টু। ক্লিনিকটি ৪০ শয্যার বলে জানা গেছে।

তবে এসব অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান। বিষয়টি দুঃখজনক ও হাস্যকর জানিয়ে তিনি বলেন, ‘শিল্পী সমিতিতে যারা সহযোগী সদস্য হয়েছেন এবং যে গ্রুপটি নির্বাচন নিয়ে আমার বিরুদ্ধে কাজ করছে, বিভিন্ন সময় ষড়যন্ত্র করেছে, আমাকে মার্ডার কেসের আসামি করার চেষ্টা, এমনকি নির্বাচিত হওয়ার পর এখন পর্যন্ত আমাকে নিয়ে যেসব ষড়যন্ত্র চলছে তারই অংশ বিশেষ পিরোজপুরে ক্লিনিক দখলের অভিযোগ এনে প্রেসক্লাবে দাঁড়িয়ে মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে। এই ক্লিনিক এবং জায়গার সঙ্গে আমি কোনোভাবে সম্পৃক্ত না।’

জায়েদ খান আরও বলেন, ‘আমার মেজো ভাই সেই ক্লিনিকের অর্ধেক মালিক। বাকি অর্ধেক কেনার জন্য তাদের টাকা দেওয়া হয়েছে। কিন্তু সেই মহিলা টাকা নিয়ে রেজিস্ট্রি না দিয়ে ঘুরাচ্ছে৷ তারই ফলশ্রুতিতে মামলাটি চলমান৷ মালিকানা নিয়ে এটি আমার ভাইয়ের এবং তাদের বিষয়। এর সঙ্গে আমি জড়িত নই। সেখানে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে সিনেমার গুটি কয়েক লোক, যারা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে আবার তারাই পিরোজপুরে গিয়ে টাকা দিয়ে লোক ভাড়া করে এনে আমার বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন খবর ছড়াচ্ছে, যা খুবই দুঃখজনক।’

Back to top button