পুলিশ: আইজিপির সফরের আদেশে ‘অসাবধানতাবশত’ ভুল

পুলিশ মহাপরিদর্শক, আইজিপি বেনজীর আহমেদসহ ৩ কর্মকর্তার জার্মানি যাওয়া নিয়ে আদেশ, জিও জারি করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। সেটি ‘অসাবধানতাবশত ভুল’ হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ সদর দপ্তর। ‘বিছানার চাদর ও বালিশের কভার কিনতে জার্মানি যাচ্ছেন আইজিপি’ এমন খবরের ব্যাখ্যায় এ কথা বলা হয়।

আজ শনিবার এ ব্যাখ্যা দেন পুলিশ সদরের মিডিয়া ও পাবলিক রিলেসন্সের সহকারী মহাপরিদর্শক মোহাম্মদ কামরুজ্জামান। তিনি জানান, পণ্যের প্রাক-জাহাজীকরণের পূর্বে তার মান যাচাইয়ের বাধ্যবাধকতা রয়েছে, সে কারণে এই সফর। সরকারি আদেশে অনিচ্ছাকৃত ভুল হওয়ায় এ নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে।

দেশ-জনগণের সেবায় পুলিশের জন্য বিভিন্ন সরঞ্জাম কেনা একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া, এটি সম্পন্ন হয় পাবলিক প্রকিউরমেন্ট রুল, পিপিআর অনুযায়ী। এসব ক্রয়ে ক্রয়কারী, উৎপাদনকারী ও উৎপাদণের কাঁচামাল প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনের বাধ্যবাধকতা আছে, বলেন মোহাম্মদ কামরুজ্জামান।

‘এ সফর নিয়ে সরকারি আদেশে অসাবধানতাবশত ভুল থাকায় আপাতদৃষ্টিতে বোঝায়, এক লাখ বিছানার চাদর ও বালিশের কভার কিনতে জার্মানি যাচ্ছেন আইজিপি। বাস্তবে বিষয়টি তা নয়, চাদর-বালিশের কাভার আমদানি করা হচ্ছে না, আদেশের শব্দগত বিন্যাসের জন্য এমন বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে।’

এর আগে গত ৭ ফেব্রুয়ারি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মাহবুবুল আলম মজুমদারের সই করা আদেশটি জারি করা হয়। তাতে এক লাখ বিছানার চাদর ও বালিশের কভার, ডাবল শিপমেন্টের জন্য, জাহাজীকরণ ‘ফ্যাক্টরি অ্যাকসেপটেন্স টেস্টে’র জন্য ৯ দিনের সফরে জার্মানি যাবেন তিন কর্মকর্তা।

তারা হলেন- আইজিপি বেনজীর আহমেদ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে জননিরাপত্তা বিভাগের উপ-সচিব ফিরোজ উদ্দীন খলিফা ও পুলিশ সুপার মাসুদ আলম। ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে সুবিধাজনক সময়ে এই সফর হওয়ার কথা বলা হয় ওই আদেশে।

Back to top button