পাঁচ ভাই নিহতের ঘটনায় পিকআপ চালক ঢাকায় গ্রেফতার

কক্সবাজারের চকরিয়ায় পিকআপ চাপায় পাঁচ ভাই নিহতের ঘটনায় সেই পিকআপ চালক সাহিদুল ইসলাম ওরফে সাইফুল ঢাকা থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

শুক্রবার রাতে রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন র‌্যাবের লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক এএসপি ইমরান খান।

তিনি জানান, শনিবার কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানানো হবে।

চকরিয়া উপজেলার মালুমঘাটের ফকিরশাহ এলাকায় মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়ক পার হওয়ার সময় পিকআপ ভ্যানের চাপায় নিহত হন চার ভাই।

পরে দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) আহত আরেক ভাইয়ের মৃত্যু হয়।

নিহতদের ছোট ভাই প্লাবন চন্দ্র সুশীল মঙ্গলবার রাতে অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের আসামি করে চকরিয়া থানায় মামলা করেন।

মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ শাফায়েত হোসেন জানান, এই দুর্ঘটনার ১০ দিন আগে মালুমঘাটের সুরেশ শীলের মৃত্যু হয়। তার আট ছেলে ও দুই মেয়ে। এক ছেলে আগেই মারা গেছেন। বুধবার সুরেশের শ্রাদ্ধ ছিল।

শ্রাদ্ধের আগের দিনের কাজের জন্য সাত ছেলে ও এক মেয়েসহ পরিবারের ৯ জন সদস্য সকালে ফকিরশাহ হাসিনাপাড়ার তিন রাস্তার মন্দিরে যাচ্ছিলেন। রাস্তা পার হওয়ার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহত আরেক ভাইও চট্টগ্রাম মেডিক্যালের আইসিইউতে এবং এক বোন ডুলাহাজরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

নিহতরা হলেন- চকরিয়ার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের সগীর শাহ কাটা গ্রামের মৃত সুরুজ চন্দ্র শীলের ছেলে অনুপম সুশীল (৪৬), নিরুপম সুশীল (৪০), দীপক সুশীল (৩৫), চম্পক সুশীল (৩০) ও স্মরণ সুশীল (২৯)।

Back to top button