নেমপ্লেট ও চেয়ারে বসা নিয়ে মুখ খুললেন নিপুণ

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন ঘিরে এখনও উত্তাল এফডিসি প্রাঙ্গণ। জায়েদ খান নাকি নিপু-কে বসতে যাচ্ছেন শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদকের চেয়ারে? এর প্রশ্নের উত্তর মিলবে ১৩ তারিখ। জানা যাবে চূড়ান্ত ফলাফল। এর আগ পর্যন্ত জায়েদ খান ও নিপুণ আক্তার কেউই দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না। ওই দিন আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে এ বিষয়ে শুনানি হবে।

বুধবার (৯ ফেব্রুয়ারি) চেম্বার আদালতের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান এ আদেশ দেন।

তবে তার আগেই আদালতের রায় অমান্য করে সাধারণ সম্পাদকের চেয়ারে বসায় ফের বিতর্কের মুখে পড়েছেন নিপুণ। তার চেয়ারে বসার কয়েকটি ছবি ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভেসে বেড়াচ্ছে। শিল্পী সমিতির টেবিলে নিপুণ তার নেমপ্লেটও লাগিয়েছেন। সেখানে লেখা রয়েছে- নিপুণ আক্তার (সাধারণ সম্পাদক), বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি।

তবে এসব বিতর্কের জবাব দিয়েছেন নিপুণ। তিনি জানিয়েছেন, আদালতের নির্দেশের প্রতি তার যথাযথ সম্মান রয়েছে। এ বিষয়ে তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এসব মিথ্যে গুজব, যা আমার নামে ছড়ানো হচ্ছে। যেদিন আমি শপথ নিই সেদিনই আমার নামে নেমপ্লেট তৈরি করা হয়েছিল। আর আমি কোনো দায়িত্ব পালন করিনি। সমিতির একজন সদস্য হিসেবে সারাদিন ছিলাম। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়েছি৷ এর চেয়ে বেশি কিছু না।’

চিত্রনায়িকা নিপুণ আরও বলেন, ‘আমি বরাবরই আইনের প্রতি অনেক শ্রদ্ধাশীল। তাই আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি আদালত যে রায় দেবেন, তার জন্যই অপেক্ষায় আাছি৷ আদালত অবমাননা করার মতো ক্ষমতা কারও নেই। আমিও তাদের মধ্যে একজন।

Back to top button